সহপাঠীকে ধর্ষণ মামলায় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র রিমান্ডে

প্রকাশিতঃ ২:১৫ অপরাহ্ণ, রবি, ১৮ আগস্ট ১৯

নিউজ ডেস্ক: খুলনার নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটির এলএলবির এক ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার তার সহপাঠী শিঞ্জন রায়কে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।

খুলনা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক শহিদুল ইসলাম শুনানি শেষে রবিবার এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে গত শুক্রবার নগরীর সোনাডাঙ্গা থানায় দায়ের হওয়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের মামলায় শিঞ্জন রায়কে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মো. তৌহিদুর রহমান ৫ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানান। শুনানি শেষে আজ আদালত এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

ওই ছাত্রীর অভিযোগ, নগরীর সোনাডাঙ্গাস্থ নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটির এলএলবিতে তিনি ও খুলনার কর কমিশনার প্রশান্ত কুমার রায়ের ছেলে শিঞ্জন রায় একসঙ্গে পড়াশুনা করেন। এক বছর আগে শিঞ্জন রায় তাকে প্রেমের প্রস্তাব দেন। এরপর বিয়ে করার প্রলোভন দেখিয়ে তার ভাড়া বাসাসহ বিভিন্ন স্থানে নিয়ে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন। তিনি বর্তমানে ৬ মাসের অন্ত:স্বত্বা।

এদিকে শিঞ্জন রায়কে গত বুধবার অন্য মেয়ের সঙ্গে বিয়ে দেওয়ার খবরে ওই ছাত্রী গত বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে নগরীর মুজগুন্নী আবাসিক এলাকার ১৬নম্বর রোডে গিয়ে শিঞ্জন রায়ের দেখা পায়। এ সময় তার বিয়ের ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করলে সে তাকে সেখান থেকে জোর করে ইজিবাইকে তুলে দিতে গেলে বিষয়টি স্থানীয়দের নজরে আসে। এ খবর পুলিশের কাছে পৌঁছালে তাদের সোনাডাঙ্গা মডেল থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

পুলিশ বৃহস্পতিবার গভীর রাত পর্যন্ত উভয়কে জিজ্ঞাসাবাদ করে। শুক্রবার সকালে ওই ছাত্রীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য খুলনা মেডিক্যাল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালের ওসিসিতে প্রেরণ করা হয়। এ ঘটনায় নির্যাতনের শিকার মেয়েটি শুক্রবার দুপুরে শিঞ্জন রায়কে আসামি করে সোনাডাঙ্গা থানায় মামলা করেন। গত শনিবার মেয়েটির ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ