সুনামগঞ্জে দুই পক্ষে সংঘর্ষে আহত অর্ধশতাধিক

প্রকাশিতঃ ১২:১৪ অপরাহ্ণ, বুধ, ৭ আগস্ট ১৯

আধিপত্য বিস্তার ও জলমহালের জমা করা অর্থকে কেন্দ্র করে সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলায় সংঘর্ষে জড়িয়েছে দুটি পক্ষ। এতে দুই পক্ষের অর্ধশতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর উপজেলার ভাটিপাড়া ইউনিয়নের মধুরাপুর গ্রামে এই সংঘর্ষ হয়। দফায় দফায় ধরে চলা সংঘর্ষে ওই এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়।

সংঘর্ষের সময় মোসাহিদ চৌধুরী, আমজাদ আলী, উমর আলী, ইউপি সদস্য খোরশেদ, দিলহক, আব্দুল জব্বারের লোকজনদের কয়েকটি বাড়িঘর ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।

বেশ কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, মধুরাপুর গ্রামের জলমহাল ও গ্রামবাসীর জমাকৃত অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে কয়েকদিন ধরে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। এরই জের ধরে মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর সংঘর্ষে জড়ায় পক্ষ দুটি। দফায় দফায় সংঘর্ষে উভয়পক্ষের অর্ধশতাধিক আহত হন।

আহতদের মধ্যে কয়েকজনের নাম জানা গেছে। তারা হলেন- নুরুল হক (৩৫), আব্দুল জলিল (৫০), কবির মিয়া (৪৮), নুরুল হক (৫০), ফখরুল ইসলাম (২২), নুর সাহেদ (৫৫), আজিজুর রহমান (৫৫), তানজিম মিয়া (৬০), নুরুল আমিন (২৫), আব্দুর রউফ (৫২), রাজু (২৬), মাজু (২৫), ছবির মিয়া (৩৫), কবির হোসেন (৪০), জামাল উদ্দিন (৪০), ঈমান আলী (৪৫), সুজেল মিয়া (২২), ছায়াতুন বেগম ৪৫), সুজন মিয়া (৪২), কাশেম (৩২), মফিল (৪০), জামাল মিয়া (২৬), সাবাজ নুর (৫০), সাহিদ (২৬), সুনু মিয়া (২৫), আতিবুল (২৮), আরাফাত (১৫), দিলহক (২৪), আব্দুল হক (৩০), লায়েক মিয়া (৫০), জাহান (৩০) এবং সুমন (২৬)। আহতদের দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মিজানুর রহমান জানান, দুপক্ষের অন্তত ৩০ জন হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসেছেন। গুরুতর আহতদের সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বাকি আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

দিরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে এম নজরুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বিষয়টি তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ