সুমা-সোহেল-ইতির পর সোনালী হাসি রোমানের

প্রকাশিতঃ ১২:৪৮ অপরাহ্ণ, সোম, ৯ ডিসেম্বর ১৯

স্পোর্টস ডেস্ক: সোমবার সকালে রিকার্ভ এককের ফাইনালে ভুটানের কিনলে তিসেরাংকে ৭-১ সেট পয়েন্টে উড়িয়ে দেন রোমান।

এর আগে ভুটানের প্রতিযোগী দেমা সোনমকে ৭-৩ পয়েন্টে হারান ইতি। আর শ্রীলঙ্কার প্রতিযোগীকে ১৪২-১৩৪ স্কোরে হারিয়ে সোনার পদক জিতে নেন সুমা।

রোববার সুস্মিতা বণিক ও শ্যামলী রায়কে নিয়ে কম্পাউন্ড মহিলা দলগত বিভাগেও সোনা জিতেছিলেন এই আর্চার।

সোমবার সকালে প্রতিপক্ষ ভুটানের প্রতিযোগী দেমা সোনমকে ৭-৩ পয়েন্টে হারান ইতি। এর আগে শ্রীলঙ্কার প্রতিযোগীকে ১৪২-১৩৪ স্কোরে হারিয়ে সোনার পদক জিতে নেন সুমা। রোববার সুস্মিতা বণিক ও শ্যামলী রায়কে নিয়ে কম্পাউন্ড মহিলা দলগত বিভাগেও সোনা জিতেছিলেন এই আর্চার।

পুরুষ কম্পাউন্ড এককের ফাইনালে ১৩৭-১৩৬ স্কোরে ভুটানের প্রতিযোগীকে হারিয়ে সোনার পদক জিতে নেন সোহেল রানা। অসীম কুমার দাস ও মোহাম্মদ আশিকুজ্জামানকে নিয়ে রোববার কম্পাউন্ড পুরুষ দলগত ইভেন্টেও সোনা জিতেছিলেন এই আর্চার।

নেপালের কাঠমান্ডু-পোখারার চলতি আসরে এটি নিয়ে মোট ১৬টি সোনা জিতল বাংলাদেশ। বিদেশের মাটিতে প্রতিযোগিতার ইতিহাসে এটাই দেশের সেরা সাফল্য। আগেরটি ছিল ১৯৯৫ সালে মাদ্রাজে পাওয়া ৭টি সোনা। হাতছানি আছে ২০১০ সালে সর্বোচ্চ ১৮ সোনা জয়কে ছাড়িয়ে নতুন উচ্চতায় ওঠার।
আগের দিন রিকার্ভ পুরুষ দলগত ইভেন্টে রোমান সানা, মোহাম্মদ তামিমুল ইসলাম ও মোহাম্মদ হাকিম আহমেদ রুবেল সোনার পদক জয় করেন। তারা ৫-৩ সেট পয়েন্টে শ্রীলঙ্কাকে হারান।

রিকার্ভ মহিলা দলগত ইভেন্টের ফাইনালে ইতি খাতুন, মেহনাজ আক্তার মনিরা ও বিউটি রায় ৬-০ সেট পয়েন্টে জিতে এনে দেন দ্বিতীয় সোনা। রিকার্ভ মিশ্র দলগত ইভেন্ট থেকে আসে তৃতীয় সোনা।
কম্পাউন্ড মিশ্র দ্বৈতে জুয়েল রানা-রোকসানা আক্তার জুটি স্বাগতিক নেপালের জুটিকে ১৪৮-১৪০ ব্যবধানে হারিয়ে ষষ্ঠবারের মতো সোনার হাসি এনে দেন।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ