‘স্বাস্থ্যবিধি মেনে হোটেল ও বেকারি খোলা যাবে’

প্রকাশিতঃ ৯:১৮ অপরাহ্ণ, শনি, ২৮ মার্চ ২০

সময় জার্নাল ডেস্ক : স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঢাকায় খাবার হোটেল ও বেকারিগুলো খোলা যাবে। পাশাপাশি একজন নাগরিক স্বাস্থ্যবিধি এবং সামাজিক দূরত্ব বজায়ের নিয়ম মেনে যেকোনো মাধ্যম ব্যবহার করে চলাফেরা করতে পারবেন।

শনিবার (২৮ মার্চ) ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এরই মধ্যে ওই সিদ্ধান্তের কথা মাঠ পর্যায়ে পুলিশকে বার্তা দিয়ে জানানো হয়েছে।

ডিএমপির একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা সাংবাদিকদের বলেন, খাবারের দোকান খোলা বা না খোলা নিয়ে একটা বিভ্রান্তি দেখা দিয়েছে। রাজধানীতে এমন অনেকেই রয়েছেন, যাদের বাসায় রান্না করার সুযোগ নেই। চলমান সাধারণ ছুটির মধ্যে তারা খাবার নিয়ে বিপাকে পড়েছেন। তাই খাবারের হোটেল খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

ওই কর্মকর্তা বলেন, হোটেল ও বেকারি খোলা রাখলে এসব প্রতিষ্ঠানের কর্মীদেরও চলাচল করতে হবে। এজন্য একজন ব্যক্তি স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে যেকোনো মাধ্যম ব্যবহার করে রাস্তায় চলাফেরা করতে পারবেন বলেও সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ ছাড়া মাঠ পুলিশকে জরুরি দায়িত্ব পালনে নিয়োজিত চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, সিটি করপোরেশন ও নিরাপত্তা প্রহরীদের বিষয়ে বিশেষ যত্মশীল হওয়ারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার (ডিএমপি) মোহা. শফিকুল ইসলাম বলেন, হোটেল খোলা থাকলেও খাবার নিয়ে বাসায় খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। কেউ যদি বসে খেতে চান, তাহলে অবশ্যই স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। এ ছাড়া মাঠ পর্যায়ে দায়িত্ব পালনকারী পুলিশ সদস্যদের সামাজিক দূরত্ব মেনে পেশাদারি আচরণ করতে বলা হয়েছে।

পুলিশ কমিশনার বলেন, বেকারি ও খাবার হোটেল সচল রাখার বাইরে অন্যান্য দিকনির্দেশনা আগের মতোই থাকবে। সবাইকে বাসায় থাকার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। তবে কেউ ওষুধ কেনা, খাবার কেনাসহ অন্যান্য অতি জরুরি কাজে বের হলে অবশ্যই স্বাস্থ্যবিধি মেনে ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলাচল করতে হবে।

সময় জার্নাল/

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ