হাইকোর্টের দুটি শাখায় সব কর্মকর্তা-কর্মচারী বদলি

প্রকাশিতঃ ১:৩৯ অপরাহ্ণ, মঙ্গল, ৩ ডিসেম্বর ১৯

আদালত ডেস্ক: প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের অসন্তোষ প্রকাশের একদিনের মাথায় সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের দুটি শাখার সব কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে বদলি করা হলো। এ সংক্রান্ত এক অফিস আদেশ জারি করে তাদের হাইকোর্টের বিভিন্ন শাখায় বদলি করা হয়েছে বলে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে।

মঙ্গলবার (৩ ডিসেম্বর) সুপ্রিম কোর্টের স্পেশাল অফিসার ব্যারিস্টার মোহাম্মদ সাইফুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, অ্যাফিডেভিট ও ফাইলিং শাখার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বদলি করা হয়েছে।

আগে কখনও এভাবে একসঙ্গে এত কর্মকর্তা ও কর্মচারীর বদলির ঘটনা ঘটেনি।

এর আগে সোমবার একটি মামলার শুনানিকে কেন্দ্র করে অসন্তোষ প্রকাশ করে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেন, সিসি ক্যামেরা বসালাম (এফিডেভিট শাখা কক্ষে), এখন সবাই বাইরে এসে এফিডেভিট করে। সিসি ক্যামেরা বসিয়েও অনিয়ম রুখতে পারছি না।

এ সময় আদালতে উপস্থিত থাকা অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, অনেকেই মামলার তালিকা ওপর-নিচ করে কোটিপতি হয়ে গেছে। প্রধান বিচারপতি বলেন, রাষ্ট্রপক্ষের অনেক আইনজীবীও আদালতে আসেন না। বেতন বেশি হওয়ার কারণে এমন হচ্ছে। বেতন কম হলে তারা ঠিকই কষ্ট করে আদালতে আসতেন।

এরপর প্রধান বিচারপতি তাৎক্ষণিক এক আদেশে ডেপুটি রেজিস্ট্রার মেহেদী হাসানকে আপিল বিভাগে তলব করেন। তবে মামলার সিরিয়াল নিয়ে মেহেদী হাসানের ব্যাখ্যায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ। পরে ডেপুটি রেজিস্ট্রারকে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দেন প্রধান বিচারপতি।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ