২০০ টাকা হবে পেঁয়াজের কেজি

প্রকাশিতঃ ৩:৪৬ অপরাহ্ণ, মঙ্গল, ১ অক্টোবর ১৯

বগুড়া প্রতিনিধি: ভারত থেকে পেঁয়াজ রপ্তানী বন্ধের খবর প্রকাশিত হওয়ার এক ঘন্টার মধ্যেই বগুড়ায় কেজি দরে ৩০ টাকা বেড়ে ১০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আবার কোথাও ১৩০ টাকাও বিক্রি হতে দেখা গিয়েছে। যা বন্যার স্রোতের মতোই বেড়ে চলছে। বিক্রেতাদের ধারণা কমপক্ষে ২০০ টাকা কেজিতে উঠবে পেঁয়াজের বাজার এ নিয়ে ক্রেতারা উদ্বিগ্ন।

আজ মঙ্গলবার বগুড়ার কয়েকটি কাঁচা বাজার ঘুরে এ চিত্র দেখা গেছে।

গোদার পাড়া বাজারে এক ক্রেতার সাথে কথা বলতে গেলে তিনি উদ্বেগ প্রকাশ করে সময় জার্নালকে বলেন, এভাবে পেঁয়াজের দাম বাড়তে থাকায় এখন আমাদের পেঁয়াজ কেনা কষ্টকর হয়ে যাচ্ছে। এ বিষয়ে ক্রেতারা সরকারের নজরদারি আশা করছেন।

প্রসঙ্গত, উৎপাদনে ঘাটতির কারনে ভারতে সরকার বাংলাদেশে পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দিয়েছে। ফলে যশোর বেনাপোল বন্দর দিয়ে গত রোববার থেকে বাংলাদেশে কোনো ধরনের পেঁয়াজ আমদানি হয়নি। যদিও ওপারে ভারতের পেট্রাপোল বন্দরে বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে আছে বেশ কিছু পেঁয়াজ বোঝাই ট্রাক।এদিকে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বেনাপোলসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে।

বেনাপোল কাস্টম হাউজের সহকারী কমিশনার উত্তম চাকমা জানান, ভারত থেকে হঠাৎ পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দেয়ায় সকাল থেকে কোনো পেঁয়াজের ট্রাক বাংলাদেশে প্রবেশ করেনি। গত শনিবার পর্যন্ত ভারত থেকে প্রতিটন পেঁয়াজ ৮৫৫ মার্কিন ডলারে রফতানি হয়ে আসছিল বাংলাদেশে। গত মাসে ভারত সরকার প্রতিটন পেঁয়াজ ৪১০ মার্কিন ডলার থেকে বাড়িয়ে ৮৫৫ মার্কিন ডলার করে।

খান্দার বাজারের আড়ত মালিক বলেন, আমাদের স্টোকের পেঁয়াজ প্রায় শেষের দিকে। এদিকে ভারত থেকে তারা আর আমাদের পেয়াজ দিবেনা। সেই হিসেবে আমাদের এখানে পেয়াজের দাম বাড়াটাই স্বাভাবিক। এখন প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১৩০ টাকা, কিন্তু কয়েকদিনের ব্যবদানে তা ২০০ টাকায় গিয়ে ঠেকবে।

দেশি পেঁয়াজ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বাজারে আমাদের দেশি পেঁয়াজ তেমনটা আসেনা, আসেলেও একেবারেই সিমিত।

সময় জার্নাল/ রোকনুজ্জামান

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ